কিছু চমকপ্রদ তথ্য, দুর্লভ আলোকচিত্র

-জয়ন্ত রায়চৌধুরী
চিকিৎসক ও গবেষক, অ্যালবার্ট আইনস্টাইন কলেজ অফ মেডিসিন, নিউ ইয়র্ক
  • বিখ্যাত আসবাব-প্রস্তুতকারক, জোশিয়া ওয়েজউডের নাতিই চার্লস ডারউইন।
  • এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঔষধবিদ্যা নিয়ে পড়াশুনো করলেও, লেকচার শোনায় বিরক্তি ছিল তাঁর।
  • জন এডমন্সটোন নাম্নী কৃষ্ণাঙ্গ ক্রীতদাসের কাছে তিনি ট্যাক্সিডার্মি শিখেছিলেন।
  • তিনি ক্রমেই একজন উৎসাহী বিটল পোকার সংগ্রাহক হয়ে ওঠেন, যেটা ওইসময় বেশ জনপ্রিয় ছিল।
  • তাঁর বাবা তাঁকে অ্যাংলিকান পারসন রূপে শিক্ষিত করে তোলার ইচ্ছায় ক্যামব্রিজের ক্রাইস্ট কলেজে পড়তে পাঠান, যদিও ডারউইন পরে খ্রিস্টধর্ম ত্যাগ করেছিলেন।
  • এইচ এম এস বিগেলে পাঁচ বৎসরব্যাপী সমুদ্রযাত্রা তাঁকে একজন প্রখ্যাত ভূতাত্ত্বিক ও পরিচিত লেখক হিসেবেই প্রতিষ্ঠা দিয়েছিল। পরে তাঁরই এই পর্যবেক্ষণগুলি থেকেই বিবর্তনের তত্ত্ব জন্ম নেয়।
  • নিজেরই বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারকে অনেক সময়েই তিনি সন্দেহের চোখে দেখেছেন। তিনি বলেছেন, “প্রাণ সৃষ্টির সামগ্রিক প্রশ্নটি মানুষের বোদ্ধার দ্বারা অনতিক্রম্য, গভীর চিন্তনে এই কথাটিই বারংবার আমার মনে হয়েছে ”।
  • ডারউইন রচিত বিবর্তনের ইতিহাসের উন্নততর রূপটি জীবন বিজ্ঞানের সমন্বয়সাধনকারী একটি তত্ত্ব।
  • নতুন গ্যালাপাগোস দ্বীপপুঞ্জে ডারউইন এমন অনেক প্রজাতির প্রাণী দেখেছেন, যার সাথে পৃথিবীর অন্যান্য প্রান্তের প্রাণীদের স্পষ্ট সম্পর্ক আছে, উদাহরণস্বরূপঃ চিলির মকিংবার্ড
  • বিগেলযাত্রার পর, স্পিরিটে সংরক্ষিত ১৫২৯টি এবং শুষ্কদেহের ৩৯০৭টি প্রাণীর নমুনা তিনি নিজের বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন।
  • লন্ডনের লিনেয়ান সোসাইটিতে ১৮৫৮ সালে একইদিনে ডারউইন ও ওয়ালশের বিবর্তনের তত্ত্ব উপস্থাপিত হয়েছিল।
  • সমুদ্রযাত্রার শেষে আরও ২২ বৎসর পর ডারউইন নিজের গবেষণা প্রকাশ করেন। মানুষের সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়া নিয়েই তিনি উদ্বিগ্ন ছিলেন। শোনা যায়, ওয়ালেশের তত্ত্ব প্রথমে প্রকাশ হবে, এই চিন্তাই তাঁকে গবেষণা প্রকাশের দিকে টেনে আনে।
  • অন দ্য অরিজিন অফ স্পিসিস বাই মিন্স অফ ন্যাচারাল সিলেকশন, ওর দ্য প্রিসারভেশন অফ ফেভার্ড রেসেস ইন দ্য স্ট্রাগেল ফর লাইফ – এই বইটিকেই সংক্ষেপে অরিজিন অফ স্পিসিস বলা হয়।
  • সারভাইভাল অফ দ্য ফিটেস্ট শব্দবন্ধটি ডারউইনের নয়, বরং অরিজিন অফ স্পিসিস বইটির পঞ্চম সংস্করণে অর্থনীতিবিদ হারবার্ট স্পেন্সারের কীর্তি।
  • রাজপরিবারের বাইরে ব্রিটেনে সবচেয়ে বেশী ষ্ট্যাম্পে বিরাজ করছেন স্বয়ং ডারউইন।
  • অরিজিন অফ স্পিসিস বইটি প্রকাশিত হওয়ার সাত মাস পর, থমাস হেনরি হাক্সলে এবং বিশপ স্যামুয়েল উইলবাফোর্সের মধ্যে বিখ্যাত ১৮৬০ অক্সফোর্ড এভলিউশন ডিবেটটি ঘটেছিল। প্রকৃতিবিজ্ঞানের ইতিহাসে এই বিতর্ক স্বর্ণাক্ষরে লেখা আর বিবর্তনের তত্ত্বকে যে মানুষ গ্রহণ করলো তার এক গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষ্য।
  • The Beagle channel
    ১. এইচ্.এম্.এস্ বীগল জাহাজের সমুদ্র সফরে এসে তরুণ চার্লস ডারউইন আর্জেন্টিনার দক্ষিণ প্রান্তে টিয়েরা দেল ফুয়েগো দ্বীপপুঞ্জের এই প্রণালীতে বিরাট ঝড়ের মুখে পড়েছিলেন | সেই থেকে এর নাম বীগল চ্যানেল | এখান থেকে জাহাজ উত্তরগামী হয়ে গ্যালাপ্যাগোস দ্বীপপুঞ্জের দিকে রওনা হয় |
  • Map of Galapagos archipelago
    ২. গ্যালাপ্যাগোস | বিষুব রেখার সামান্য উত্তরে এই আগ্নেয়গিরি দিয়ে তৈরি প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জে এসে ডারউইন দেখলেন এখানকার পাখি ও সরীসৃপেরা পৃথিবীর অন্য জায়গার প্রাণীদের থেকে একটু আলাদা | শুধু তাই নয়, এই ১৪টি বিভিন্ন দ্বীপের প্রাণীদের মধ্যেও কিছু কিছু তফাৎ আছে | তিনি অনেক নমুনা সংগ্রহ করে ইংল্যান্ডে নিয়ে যান |
  • Versatile species of Finch in Galapagos
    ৩. ডারউইন লক্ষ্য করলেন যে গ্যালাপ্যাগোসের বিভিন্ন দ্বীপের ফিঞ্চ পাখীদের ঠোঁট গুলো ঠিক এক রকম নয় | ভবিষ্যতে এই ফিঞ্চের ঠোঁটের উপর নিরীক্ষা ডারউইনের বিবর্তনবাদের ভিত্তিস্থাপন করেছিল | এরা এখন তাই ডারউইনের ফিঞ্চ নামে পরিচিত |
  • Cactus Finch and their beak-shape
    ৪. ক্যাকটাস ফিঞ্চ- যার ঠোঁট ক্যাকটাসের ফল খাবার উপযুক্ত হয়ে বিবর্তিত হযেছে|Dabchick cannot fly for dysfunctional generations
  • ৫. উড়ান-অক্ষম পানকৌড়ি | বহু যুগ ধরে এদের উড়ে মাছ ধরার প্রয়োজন হয় নি – তাই পুরুষানুক্রমে এদের ডানা ছোট হতে হতে অকেজো হয়ে গিয়ে বিবর্তনের সাক্ষী হয়ে রয়েছে |
  • Mocking bird of Santiago, different from the rest of world
  • ৬. সান্তিয়াগো দ্বীপের মকিং-বার্ড পৃথিবীর আর সব মকিং বার্ড থেকেএকটু আলাদা |
  • Doves of Galapagos, their feathers are unique
  • ৭. গ্যালাপ্যাগোসের ঘুঘু পাখিদের পালক আর সব ঘুঘু থেকেএকটু আলাদা |
  • Flycatcher of Galapagos, different from continental flycatchers
  • ৮. গ্যালাপ্যাগোস ফ্লাইক্যাচার-দের সঙ্গে মহাদেশীয ফ্লাইক্যাচার-দের থেকে সামান্য তফাৎ |
  • The only nocturne sea-bird – swallow tailed gull
  • ৯. সোয়ালো-টেইলড্ গাল (Creagrus furcatus) শুধু গ্যালাপ্যাগোসেই প্রজনন করে | এরাই একমাত্র নিশাচর সামুদ্রিক পাখি |
  • Blue-footed Bobby ( Sula nebouxii ) of Galapagos
  • ১০. গ্যালাপ্যাগোসের বিখ্যাত ব্লু-ফুটেড বুবি (Sula nebouxii): এরা প্রশান্ত মহাসাগরের পূর্ব তটে রুক্ষ খাড়াই পাথরের ফোকরে বাসা বাঁধে | এদের অর্ধেক প্রজনন উপনিবেশই গ্যালাপ্যাগোস দ্বীপপুঞ্জে |
  • Galapagos penguins – solitary in northern hemisphere
  • ১১. গ্যালাপ্যাগোসের পেঙ্গুইন (Spheniscus mendiculus) : উত্তর গোলার্ধে একমাত্র এখানেই পেঙ্গুইন পাওয়া যায় |
  • Ocean Iguana only found in Galapagos
  • ১২. সামুদ্রিক ইগুয়ানা (Amblyrhynchus cristatus): এদের শুধুই গ্যালাপ্যাগোসে পাওয়া যায় |
  • Iguana – lives deep in ocean water
  • ১৩. জলের তলায সামুদ্রিক ইগুয়ানা (Amblyrhynchus cristatus): এরাই পৃথিবীর একমাত্র গিরগিটি-জাতীয় প্রাণী যারে জলের তলায় খাবার সংগ্রহ করে | ভয়াবহ চেহারা হওয়া সত্বেও এরা সম্পূর্ণ নিরামিষাশী|
  • Land Iguanas on Galapagos islands
  • ১৪. গ্যালাপ্যাগোস স্থল ইগুয়ানা (Conolophus subcristatus): বিঞ্জানীরা মনে করেন এই বিরাট ইগুয়ানা গুলো ও সামুদ্রিক ইগুয়ানারা একই পূর্বপুরুষ থেকে বিবর্তিত হয়েছে |
  • Galapagos Lava Lizard
  • ১৫. গ্যালাপ্যাগোস লাভা গিরগিটি (Microlophus albemarlensis) গ্যালাপ্যাগোসের যেসব দ্বীপ আগ্নেয়গিরির রুক্ষ লাভায় তৈরি, সেখানে এদের পাওয়া যায় |
  • Monstrous land tortoise of Galapagos archipelago
  • ১৬. গ্যালাপ্যাগোসের স্থল কচ্ছপ (Chelonoidis genus): ১৮৩৫ সালে ডারউইন দেখেন যে গ্যালাপ্যাগোসের এক এক দ্বীপে কচ্ছপের খোলা এক এক রকম | পরে এই পর্যবেক্ষণ তাঁকে বিবর্তনবাদ প্রতিষ্ঠা করতে সাহায্য করে | এরা ১০০ থেকে ২০০ বছর বাঁচে |
  • ‘lonesome George’ – only member of his species, died on 24th June of year 2012
  • ১৭. “একলা জর্জ” (“Lonesome George”): কোনো এক কালে এখানে ১৫টি প্রজাতির স্থল কচ্ছপ ছিল – আজ শুধু ১০টি আছে, অন্যরা মানুষের উৎপাতে লুপ্ত হয়েছে (গ্যালাপ্যাগোসে মানুষ ছাড়া এদের কোনও শত্রু নেই) | ১১তম প্রজাতির (C. abingdonii ) শুধু একটি প্রতিনিধি বেঁচে ছিল- যার নাম -“একলা জর্জ” ২০১২ সালের ২৪শে জুন মারা গেছে |
  • Ocean tortoise of Galapagos
    ১৮. গ্যালাপ্যাগোসের সামুদ্রিক কচ্ছপ (Chelonia agassizii): এরা শুধু গ্যালাপ্যাগোসের সমুদ্র-বেলায় দু-তিন বছর অন্তর ডিম পাড়ে |

Add Comments