অবসাদ কাটাতে হেল্প লাইন

অবসাদ কাটাতে হেল্প লাইন

কোভিডে কেউ হারিয়েছেন স্বজন, কেউ বা কাজ। কারও বা সম্পর্কে ঘটেছে অবনতি, সংসারে তৈরি হয়েছে অশান্তি। দিন-রাত কোভিডে মৃত্যু দেখতে দেখতে অবসাদে আক্রান্ত এক ডাক্তারও আত্মহত্যা করার ঠিক আগের মুহূর্তে ফোন করেছিলেন। আর সেই কারণেই আজ তাঁরা সকলেই ফের সুস্থ জীবনে। কেউ লড়াই করছেন। কেউ হয়ে উঠেছেন ‘কোভিড যোদ্ধা।’ এই সময়ে অবসাদ ও আত্মহত্যার প্রবণতা রুখতে ‘সুইসাইড প্রিভেনশন হেল্পলাইন’ (১৮০০ ৫৩২ ০৮০৭) চালু করেছে ‘ইন্ডিয়ান সাইকায়াট্রিক সোসাইটি।’ এক মাসও হয়নি, এর মধ্যেই ৫০০-র বেশি ফোন এসেছে ওই নম্বরে। অন্তত ৪৬ জনের আত্মহত্যা রোখা গিয়েছে বলেও দাবি সেখানকার চিকিৎসকদের। এর মধ্যে কোভিডে মা-বাবাকে হারানো ওই কিশোরীর পাশাপাশি কাজ হারানো মানুষও রয়েছেন। ওই সংস্থার দাবি, তাদের শরণাপন্ন হওয়া এক জনও এখনও আত্মহননের পথে যাননি।