কোভিডের জন্য এইচআইভি-র চিকিৎসা বন্ধ!

কোভিডের জন্য এইচআইভি-র চিকিৎসা বন্ধ!

এইডস, টিউবারকিউলোসিস, ম্যালেরিয়ার মতো মারণ রোগের প্রতিষেধক খোঁজার অণ্বেষণে পৃথিবী জুড়ে চিকিৎসক, বিজ্ঞানীরা অনেকদূর এগিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু গোলমাল বেধে গেল করোনা মহামারীর ধাক্কায়! পৃথিবীর ১০০টি দেশে, যার মধ্যে অবশ্যই রয়েছে ভারতের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশ বা আফ্রিকার গরিব দেশগুলো, করোনা মহামারীর চিকিৎসা করতে গিয়ে হিমসিম খাওয়া চিকিৎসা বিজ্ঞানকে বন্ধই করে দিতে হয়েছে এইডস, টিউবারকিউলোসিসের মতো মারণ রোগ চর্চা করা! অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক হলেও ঘটনাটি সত্যি। রিপোর্ট দিয়েছে গ্লোবাল ফান্ড নামের একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। যারা এইচআইভি, টিবি, ম্যালেরিয়ার জন্য বিভিন্ন দেশে আর্থিক অনুদান পাঠায়। তাদের দেওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৯-২০ সালে কোভিডের জন্য এই অসুখগুলোর চিকিৎসা কমে গিয়েছে ১৯ শতাংশ! এইচআইভি রোগীদের জন্য চলতে থাকা চিকিৎসা একই মরশুমে কমে গিয়েছে ১৬ শতাংশ! গ্লোবাল ফান্ডের দেওয়া উদ্বেগজনক রিপোর্ট, ২০১৯-২০-তে প্রায় ১০ লক্ষ কম টিবি রোগীর চিকিৎসা হয়েছে। এমনকী, বিশ্ব জুড়ে পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে টিউবারকিউলোসিসে আক্রান্ত আর এইচআইভি-তে আক্রান্ত রোগীর রক্ত এবং অন্যান্য বিষয়ের পরীক্ষা হয়েছে প্রায় না হওয়ার মতোই! গ্লোবাল ফান্ড জানাচ্ছে, রোগীর এইচআইভি পরীক্ষা ২০২০-তে ২২ শতাংশ কমে গিয়েছিল। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অবশ্য জানিয়েছে, উদ্বেগের মধ্যেও ম্যালেরিয়ার চিকিৎসা হয়েছে এবং হচ্ছে। তাদের দাবি, আগামী বছর থেকে আবার পুরোদমে উন্নয়নশীল ও গরিব দেশগুলোতে এই অসুখগুলোর চিকিৎসা চালু করতে যা যা করা প্রয়োজন করা হবে।