তিরিশ বছর আগের মমির রহস্য উদঘাটন

তিরিশ বছর আগের মমির রহস্য উদঘাটন

প্রায় তিরিশ বছর আগে খুঁজে পাওয়া ১৩টি মমির জিনোম সিকোয়েন্স বিশ্লেষণ হয়েছে সম্প্রতি। নব্বইয়ের দশকে চীনের উত্তর পশ্চিমে জিনজিয়াংয়ের তারিম অববাহিকায় একটি মরুভূমিতে নৌকার ওপর শতাধিক মমির সন্ধান পান প্রত্নতাত্ত্বিকরা। মমিগুলোর পোশাক অক্ষত ছিল, এমনকি মরুভূমির শুষ্ক প্রাকৃতিক পরিবেশে মুখের অবয়ব ও চুলের রং  ইত্যাদিও দেখা যাচ্ছিলো স্পষ্টভাবে। মমির চেহারা বাইরে থেকে দেখতে ছিলো পশ্চিম দেশীয়দের মতো। কিন্তু চীন,ইউরোপ, আমেরিকার গবেষকরা ১৩ টি মমির জিনোম সিকোয়েন্স করে দেখেছেন- মমিগুলো পশ্চিমদেশীয়দের নয়, এগুলো প্রাচীন বরফ যুগের মানুষের, যারা এশিয়া অঞ্চলেরই। দেখা যায় ৩৭০০ থেকে ৪১০০ বছর আগের। ১৩টির মধ্যে ৫টির ডিএনএ নমুনার সাথে প্রায় ৫ হাজার বছর আগে জঙ্গেরিয়ান অববাহিকায় বসবাসরত প্রাচীন মানুষের মিল রয়েছে। কিন্তু গবেষকদের অন্যতম সদস্য হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ক্রিস্টিনা ওয়ারিনার বলেন, মমিগুলো স্থানীয় জনগোষ্ঠী প্রাচীন উত্তর ইউরেশিয়ান অঞ্চলের মানুষের উত্তরসূরিদের। শেষ বরফ যুগের সময় ওই গোষ্ঠীটি হারিয়ে যায়।
ক্রিস্টিনা আরো বলেন, মমিগুলো আবিষ্কারের পর বিজ্ঞানীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও মুগ্ধ হয়েছে। দারুণভাবে সেগুলো সংরক্ষিত ছিল। সবগুলো মমিতেই বৈচিত্র্যময় সাংস্কৃতিক উপাদান পাওয়া গেছে বলে জানান তিনি।