দুই বঙ্গে দুই হাওয়া

দুই বঙ্গে দুই হাওয়া

এ হল ঘূর্ণাবর্ত আর মৌসুমী বায়ুর খেলা। যেখানে যখন কোনও ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হচ্ছে, সেই ঘূর্ণাবর্তের পিছনে দৌড়চ্ছে মৌসুমি অক্ষরেখা। সেখানেই আকাশ ভেঙে নামছে বৃষ্টি‌। ফুলে ফেঁপে ওঠা নদীর জল ভাসিয়ে দিচ্ছে একের পর গ্রাম। সপ্তাহ দুয়েক আগে ঘূর্ণাবর্ত ছিল দক্ষিণবঙ্গের উপরে। বন্যা হয়ে গিয়েছিল বেশ কয়েকটি জেলায়। সেই জল এখনও পুরোপুরি নামেনি। এবার ঘূর্ণাবর্ত বাসা বদল করে পাড়ি দিয়েছে উত্তরে। তাই অতিবর্ষণের আশঙ্কা এবার উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে। ইতিমধ্যেই প্লাবিত মালদহের বেশ কিছু এলাকা। আর এবার পালা জলপাইগুড়ি, কোচবিহার আর দুই দিনাজপুরের। উত্তরের মানুষের কাছে ভয় যেখানে অতিবৃষ্টি, দক্ষিণে সেখানে আর্দ্রতা আর গরম মিলে হাঁসফাঁস অবস্থা। উত্তরের আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহারে অতিভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এছাড়াও এদিন ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে দার্জিলিং, কালিম্পং এবং জলপাইগুড়িতে। মালদহ উত্তর এবং দক্ষিণ দিনাজপুরে রয়েছে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।বৃহস্পতিবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়ি এই পাঁচ জেলায়।
দক্ষিণের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা বাড়ার পাশাপাশি অস্বস্তি বাড়াবে।
কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা থাকলেও বৃষ্টিপাতের কোনও সম্ভাবনা নেই।