নদী শুকিয়ে গিয়ে খরা

নদী শুকিয়ে গিয়ে খরা

দেশের যে প্রধান নদীতে সমুদ্রের জল এসে নদীকে উপচে দেয় এবং বৃষ্টিতে সারা বছর দেশে জলের অভাব থাকে না, প্যারাগুয়ের
সেই নদীতে জল নেই এবছর! প্যারাগুয়ের রাজধানী আসুনসিয়নে প্যারাগুয়ে নদী প্রায় ২২ ইঞ্চি নিচে নেমে গিয়েছে জলের অভাবে! ওখানকার আবহাওয়া বিভাগের প্রধান অস্কার হুগো সালসেডো জানিয়েছেন গত ১১৭ বছরে প্যারাগুয়ে এই দৃশ্য দেখেনি! ২৬০০ কিলোমিটারের এই নদী গিয়ে পড়েছে আটলান্টিকে। সেই নদী শুধু জলই দেয় না দেশের মানুষকে, এই নদী দেশের মৎসজীবীদেরও জীবিকা নির্বাহের প্রধান মাধ্যমও। এবার কোনও নৌকা সমুদ্রে যেতে পারেনি। মাছও ধরা যায় নি। মাছ রফতানি প্যারাগুয়ের আয়ের অন্যতম মাধ্যম। সেটা এবার হয়নি। গতবছর কোভিড-১৯ এর পর থেকেই সে দেশের অর্থনীতি ধুঁকছে। আর এ বছরের খরা সমস্যা আরও তীব্র করে দিল। সরকারের তরফে হাইড্রোলজি ডিরেক্টর নেলসন পেরেজ বলেছেন, “গত বছর ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ক্ষতি হয়ে গিয়েছিল। এবারও মনে হচ্ছে ক্ষতির পরিমাণ ওরকমই হবে!” সরকার এখন প্যারাগুয়ে নদীর তলায় খোঁড়ার নিদেশ দিয়েছে। যদি তাতে একটু জলের সন্ধান পাওয়া যায়!