লা পামার অগ্ন্যুৎপাত আরও তীব্র

লা পামার অগ্ন্যুৎপাত আরও তীব্র

১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছিল প্রকৃতির এই তাণ্ডব। এখনও তা অব্যাহত। বললে ভুল হবে, স্পেনের ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্গত লা পামায় আগ্নেয়গিরির তাণ্ডব শুরু হয়েছিল তার তীব্রতা আরও বেড়ে গিয়েছে! সোমবার কামব্রে ভিয়েজা আগ্নেয়গিরি থেকে যে পরিমাণ লাভার স্রোত বেরিয়েছে তাকে উপগ্রহের ছবিতে একটা নদীর মত দেখতে লাগছে! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আগ্নেয়গিরির গর্তেও অগ্ন্যুৎপাতের ফলে বিস্ফোরণ হয়েছে।
সোমবার সকালে ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের আঞ্চলিক প্রেসিডেন্ট অ্যাঞ্জেল ভিক্টর তোরহেস জানিয়েছেন, লাভার নদী যে পথে গমন করেছে তাতে প্রায় এক হাজার বাড়ি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, ৬ হাজারেরও বেশি লোককে সরিয়ে নিয়েছে সরকার। ১৯৭১-এ শেষবার লা পামায় যে ভয়ঙ্কর অগ্ন্যুৎপাত হয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা তার তুলনায় এবার অন্তত তিনগুণ বেশি পাথর, খনিজ দ্রব্য আর কার্বন-ডাই-অক্সাইড বেরিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তোরহেস বলেছেন, “অগ্ন্যুৎপাত যদি বন্ধ না হয়, লাভার স্রোত আরও তীব্র হবে। ক্ষয়ক্ষতি আরও বাড়বে। তবে আপাতত মনে হচ্ছে, আর লোক সরাতে হবে না।” ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে মোট লোকসংখ্যা ৮৩ হাজার। তার মধ্যে দু’টো বড় শহর, এল পাসো আর লস আরিদান থেকে ৬ হাজার মানুষকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। তাৎপর্যের বিষয়, এই ৬ হাজার মানুষের জন্য ইতিমধ্যে সরকার ৩০০-র বেশি বাড়ি কিনে ফেলেছেন!
না হলে ওদের অবস্থা যে পশ্চিমবঙ্গের বাণভাসি অঞ্চলগুলোর দুর্গতদের মত হয়ে যেত!