লিভারে ভ্রুণ! তাজ্জব ঘটনা কানাডায়

লিভারে ভ্রুণ! তাজ্জব ঘটনা কানাডায়

গর্ভাশয় নয়, লিভারে বাড়ছে ভ্রুণ। এমনই তাজ্জব ঘটনা ঘটেছে কানাডার এক ৩৩ বছরের অন্তসত্বা মহিলার দেহে। ঘটনা দেখে হতবাক কানাডার মানিটোবার চিল্ড্রেন্স হসপিটাল রিসার্চ ইন্সটিটিউটের শিশু চিকিৎসক মাইকেল নার্ভে। ৪৯ দিন আগে শেষবার ঋতুস্রাব হয়েছিলো ভদ্রমহিলার। স্বাভাবিকভাবেই প্রেগন্যান্সি টেস্ট করা হলে প্রথমে গর্ভাশয়ে ভ্রুণের কোনো হদিশ পাওয়া যায় না। হতবাক হয়ে যান মাইকেল নার্ভে। পরে সেনোগ্রাফির সময় হঠাৎ দেখেন ভ্রুণ লিভারে চলে এসেছে।
ডা. নার্ভে জানান, এটা একধরনের একটোপিক প্রেগন্যান্সি। যা খুবই বিরল এবং খুবই বিপজ্জনকও বটে। একটোপিক প্রেগন্যান্সিতে নিষিক্ত ডিম্বানু গর্ভাশয়ের বদলে ফ্যালোপিয়ান টিউবে আটকে গিয়ে সেখানে বাড়তে থাকে। কখনো আবার সার্ভিক্স(তলপেটের দেওয়াল) -এ বাড়তে থাকে। তবে লিভারে একটোপিক প্রেগন্যান্সির ঘটনা খুবই বিরল। সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশনের তথ্য অনুযায়ী ১৯৬৪ থেকে ১৯৯৯ পর্যন্ত লিভারে ভ্রুণ পাওয়ার ঘটনা গোটা বিশ্বে ঘটেছে মোট ১৪ টি। তবে ডা. মাইকেল নার্ভের অভিজ্ঞতায় তলপেটে ভ্রুণ চলে আসার আগে হলেও, লিভারে ভ্রুণ চলে যাওয়ার অভিজ্ঞতা এই প্রথমবার।