এই প্রজাতির পুরুষ মাছও ডিম পাড়ে

এই প্রজাতির পুরুষ মাছও ডিম পাড়ে

এক ঝলকে ভেটকি বলে মনে হতে পারে। মিলও আছে ভেটকি মাছের সঙ্গে। কারণ এই প্রজাতির মাছ ভেটকিই দূর সম্পর্কের আত্মীয়। খুব দুস্প্রাপ্যও নয় এই মাছ। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি সহ ওশিয়ানিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিতে এই মাছ খাওয়ার যথেষ্ঠ প্রচলন রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় মানুষ এই মাছের নাম দিয়েছেন বারামুন্ডি। এই মাছের বৈশিষ্ট্য যে, একশো শতাংশ মাছই ডিম পাড়তে সক্ষম। মানে, স্ত্রী মাছদের সঙ্গে পুরুষ মাছেরাও ডিম পাড়ে!
সাধারণত মিষ্টি জলের মাছ বারামুন্ডি। প্রজননের সময় নদীর গতিপথের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলে যায় মোহনার দিকে। সেখানেই ডিম ফোটে তাদের। জোয়ার-ভাটার স্রোতই সহায়তা করে মাছগুলোকে ডিম থেকে বড় করতে। জন্মানোর সময় দেখা যায়, পুরুষ মাছের সংখ্যা স্ত্রী-দের তুলনায় অনেক বেশি! কিন্তু প্রকৃতির এক অপরূপ সৃষ্টি যে, ডিম দেওয়ার সময় পরুষ থাকা বারামুন্ডিগুলো হার্মাফ্রেডিটিক আচরণের মাধ্যমে ধীরে ধীরে মহিলা বারামুন্ডি হয়ে ওঠে! সাধারণত বারামুন্ডির দৈর্ঘ্য হয় ২ থেকে ৪ ফুট। আয়তনে বড় প্রায় সব বারামুন্ডিই কিন্তু মহিলা। অদ্ভূত এই মাছের কথা শুনলে মনে আসে অর্ধনারীশ্বরের তত্বও!