এবার বাণিজ্যিক মহাকাশ স্টেশন

এবার বাণিজ্যিক মহাকাশ স্টেশন

এবার বাণিজ্যিক মহাকাশ স্টেশন তৈরি করতে চলছে নাসা। এই মর্মে তিনটি সংস্থাকে কয়েক কোটি মার্কিন ডলারের বরাত দিল মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি। বিজ্ঞানীরা আশা করছেন, আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের বিকল্প হিসেবে বাণিজ্যিক মহাকাশ স্টেশনগুলো ব্যবহার করা যাবে। এ দশকের শেষেই অবসরে যাবে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন।
বরাত পাওয়া সংস্থাগুলো হল মার্কিন ধনকুবের জেফ বেজোসের ব্লু অরিজিন, মহাকাশ সংস্থা ন্যানোর‌্যাকস ও প্রতিরক্ষা ঠিকাদার নর্থরপ গ্রুমান। প্রতিষ্ঠান তিনটি মহাকাশ স্টেশন গড়তে যথাক্রমে ১৩ কোটি, ১৬ কোটি ও ১২ কোটি ৫৬ লাখ মার্কিন ডলার করে পেয়েছে। এর আগে অ্যাক্সিওম স্পেস নামের আরেকটি কোম্পানিকে নাসা ১৪ কোটি মার্কিন ডলার বরাদ্দ করেছে।
আগে নাসা নিজে থেকে বিভিন্ন হার্ডওয়্যার তৈরিতে কাজ করলেও ধীরে ধীরে তারা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভরশীল হয়ে উঠছে। খরচ সাশ্রয় করার পাশাপাশি উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য অর্জনের জন্যই এ পথে হাঁটতে হচ্ছে সংস্থাটির। নাসার উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে চাঁদে বসতি স্থাপন ও মঙ্গল গ্রহে নভোচারী পাঠানোর মতো নানা বিষয়।
নাসার প্রধান বিল নেলসন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমরা মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে মহাকাশে স্টেশন তৈরির জন্য অংশীদার হচ্ছি, যাতে সেখানে ভ্রমণ, বসবাস ও কাজ করা সম্ভব হয়। এর মাধ্যমে নাসা মহাকাশে বাণিজ্যিক কার্যক্রম উত্সাহিত করার পাশাপাশি মানুষের সুবিধার জন্য নানা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবে।’