ক্ষুদ্রতম ভরের মহাকর্ষজ টান পরিমাপ

ক্ষুদ্রতম ভরের মহাকর্ষজ টান পরিমাপ

সবচেয়ে ক্ষুদ্র বস্তুর অভিকর্ষজ টান পরিমাপ করলেন বিজ্ঞানীরা। বস্তুটি ৯০ মিলিগ্রাম ওজনের সোনার বল। নিউটনের সার্বজনীন মহাকর্ষ সূত্র অনুযায়ী দুটি ভরের(বস্তুর ভর) মধ্যেকার মহাকর্ষ বল তাদের দূরত্বের বর্গের সাথে বিপরীতভাবে সমানুপাতিক। এমনকি অতি ক্ষুদ্র বস্তুর ক্ষেত্রেও এ সূত্রের নড়চড় নেই – সে প্রমাণই পাওয়া গেল আরো একবার। নেচার পত্রিকায় পরীক্ষার ফলাফল রিপোর্টও করেছিলেন বিজ্ঞানীরা চলতি বছরের মার্চে। অত্যন্ত দুর্বল মহাকর্ষজ ক্ষেত্রে ৯০ মিলিগ্রাম সোনার গোলক ও বিপরীতে একই ভরের গোলক নিয়ে পরীক্ষাটি করা হয়। সোনার গোলকটি সম ভরেএ বিপরীত বস্তুর সমান্তরাল পাতের ওপর কয়েক মিলিমিটার দূরত্বে এমন করে রাখা হয় যাতে মুক্ত ভাবে বস্তু আবর্তিত হতে পারে। দেখা যায় প্রথম বস্তুটি যখন আবর্তিত হচ্ছে দ্বিতীয় বস্তুটি তখন প্রথম বস্তুর কাছাকাছি আসছে – অভিকর্ষজ টানের জন্যেই। এই অভিকর্ষজ টানের পরিমাপ নিউটনের সূত্রের সাথে তো বটেই আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতার সূত্রকেও নিঁখুত মেনে চলে। এর আগে ১০০ মিলিগ্রামের বেশি ভরযুক্ত বস্তুর মহাকর্ষজ টান পরিমাপ করা হয়েছিল। এই প্রথম ১০০ মিলিগ্রামেরো কম ভরের বস্তুর মহাকর্ষজ টান পরিমাপ করা হলো।