ক্ষেপনাস্ত্রে ক্ষতবিক্ষত মহাকাশের উপগ্রহ

ক্ষেপনাস্ত্রে ক্ষতবিক্ষত মহাকাশের উপগ্রহ

কাকপক্ষীকেও না জানিয়ে ভূপৃষ্ঠ থেকে রাশিয়া মহাকাশে ছুড়ল খুব শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র। পরপর চারটি। তাদের আঘাতে কয়েক মিনিটের মধ্যে চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে যায় পৃথিবীর কক্ষপথে থাকা একটি কৃত্রিম উপগ্রহ। ভেঙে পড়া সেই প্রায় ৪০ বছর বয়সি উপগ্রহ থেকে দিগ্বিদিকশূন্য হয়ে ছিটকে বেরনো বড় ও মাঝারি রাশি রাশি টুকরো ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে মহাকাশে। রাশি রাশি টুকরো কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে শুরু করে দেয় ঘণ্টায় প্রায় সাড়ে ২৭ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি গতিবেগে। আর একটু হলেই যার ধ্বংস হয়ে যেতে পারত পৃথিবীর কক্ষপথে থাকা আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন। আগুন লেগে যেতে পারত মহাকাশ স্টেশনে।
নাসার কন্ট্রোল রুম থেকে খবর পেয়ে ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা হয় মহাকাশচারীদের। প্রাণ বাঁচাতে মহাকাশ স্টেশন থেকে বেরিয়ে সাত জন মহাকাশচারীই চেপে বসেন পৃথিবীতে ফিরে আসার জন্য অপেক্ষারত মহাকাশযানে। সেখানেই আশ্রয় নিতে বাধ্য হন মহাকাশচারীরা। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন আমেরিকা, জাপান ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (এসা)-র মহাকাশচারীরা। পরে জানা যায় ওই ঘটনা ঘটেছে রাশিয়ার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘রসকসমস’-এর উপগ্রহ বিধ্বংসী পরীক্ষার জন্য।