‘গিরগিটি’ গাড়ি!

‘গিরগিটি’ গাড়ি!

বিএমডব্লিউ নিয়ে আসছে গিরগিটির মতো রং বদলানো গাড়ি! জার্মান এই গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাটি সম্প্রতি এমনি কনসেপ্ট গাড়ির এক ঝলক লাস ভেগাসের সিইএস ২০২২ ইভেন্টে দেখিয়েছে। গাড়ির নাম বিএমডব্লিউ আইএক্স ফ্লো (BMW iX Flow)। টেক সংবাদমাধ্যম দ্য ভার্জ-এর একটি রিপোর্টে এই বিএমডব্লিউ-র এই গাড়িটিকে বলা হচ্ছে, “কিন্ডলের সঙ্গে এর অনেকাংশেই মিল রয়েছে।” আর এমন তকমা এঁটে দেওয়ার পিছনের কারণটিও যথেষ্ট যুক্তিসঙ্গত। কিন্ডল-সহ বেশ কিছু ই-বুক রিডারে থাকছে ই-ইঙ্ক প্রযুক্তি (Electronic Ink Technology)। সেই প্রযুক্তিই ব্যবহৃত হয়েছে এই আধুনিকতম গাড়িটিতে।
যদিও আপাতত এই বিএমডব্লিউ আইএক্স ফ্লো গাড়িটি মার্কেটে আসার কোনও সম্ভাবনা নেই। সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ডেভেলপমেন্ট স্টেজে থাকা এই গাড়ি এই ডেমোটি কেবল মাত্র উন্নত গবেষণা এবং নকশা প্রকল্পের জন্যই ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, এটিই বিশ্বের প্রথম কোনও গাড়ি যাতে রং বদলানোর প্রযুক্তি রয়েছে। বোতাম টিপলেই রং বদলাবে গাড়িটি। অর্থাৎ গাড়িতে চালু হবে উদ্ভাবনী পেন্ট স্কিম। যদিও আপাতত সাদা, কালো এবং ধূসর – এই রংই বদলানো যাবে। এই প্রযুক্তি যে বৈদ্যুতিক গাড়ির কর্মক্ষমতায় প্রভাব ফেলবে, সেই কথাটা একপ্রকার জোর দিয়েই বলছে বিএমডব্লিউ।
বিএমডব্লিউ রিসার্চ ইঞ্জিনিয়ারদের তরফে বলা হয়, কালো পিঠের চেয়ে অনেক বেশি সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয় সাদা পিঠে। ঠিক একই ভাবে সাদা গাড়ির চেয়ে অপেক্ষাকৃত বেশি গরম হয় কালো গাড়ি। এর ফলে, গরম কালে সাদা রঙের গাড়ির এসি বন্ধ রেখে বা কমিয়ে বিদ্যুৎ অনেকখানিই সাশ্রয় করা যাবে। আবার শীত কালে কালো গাড়ি এমনিই সেটিকে গরম করে রাখবে। বিএমডব্লিউ আইএক্স ফ্লো গাড়িতে এত সব কিছু একই সঙ্গে হবে, যা সচরাচর আলাদা আলাদা গাড়িতে হয়ে থাকে।