চিনি কম

চিনি কম

প্যাকেটজাত খাবার এবং সফট ড্রিঙ্কস থেকে ২০ শতাংশ চিনি যদি কমে যায় তাহলে ২৮ লক্ষ মানুষ বেঁচে যাবে যে কোনও রকমের কার্ডিওভাস্কুলার অসুখ থেকে! মানে স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, কার্ডিয়াক আরেস্ট হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে সেই রোগীদের। ডায়াবেটিসের হাত থেকে মুক্ত হবে ৭৫ হাজার মানুষ। এই হিসেবটা শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয়ের ও ফ্রিডম্যান স্কুল অফ নিউট্রিশনের বিজ্ঞানীদের করা গবেষণা থেকে এই তথ্য উঠে এসেছে। এই বিজ্ঞানীদের একজন, সিয়ি শাঙ্গুয়ানের বক্তব্য, “এটার বিষয়ে সবচেয়ে উদ্যোগী হওয়া উচিত সরকারের। না হলে প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলোকে তো বাধ্য করা যাবে না খাবার ও ড্রিঙ্কসে নিয়ন্ত্রিত পরিমাণে চিনি দিতে। তাই আমাদের এই গবেষণার পেপারের ওপর ভিত্তি করে সরকারের উচিত একটা জাতীয় নীতি তৈরি করে কোম্পানিগুলোকে সার্কুলারের আকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা।” তিনি আরও জানিয়েছেন, চিনি হচ্ছে সেরা অ্যাডিটিভসগুলোর মধ্যে একটা। শাঙ্গুয়ানের মতে, “খাবারের গুণগতমান অনেকটা নির্ধারণ করা যায় শুধু চিনির ব্যবহারে। এমনকী, খাবারে ভেজালও ঢেকে দেওয়া যায় চিনির পরিমাণে তারতম্য ঘটিয়ে। তাই তাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে মানুষের শরীরও ধীরে ধীরে রোগমুক্ত হতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হয়ত একদিন পারবে এমনটা সম্ভব করতে। আমরা শুধুই শুনব আর লিখব!