ডেল্টা নয়, বিজ্ঞানীদের উদ্বেগ নিপা’কে নিয়ে!

ডেল্টা নয়, বিজ্ঞানীদের উদ্বেগ নিপা’কে নিয়ে!

করোনা ভাইরষসের ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টের ধাক্কা সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে আমেরিকা, ইউরোপ এবং এশিয়া মহাদেশের দেশগুলো। কিন্তু ইংল্যান্ডের রিডিং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা বলছেন, ডেল্টা নয়, নতুন এক ভাইরাস আবার পৃথিবী জুড়ে করোনারই মত মহামারীর সৃষ্টি করতে পারে। তার নাম নিপা। ভাইরাসটিকে প্রথম খুঁজে পাওয়া গিয়েছিল মালয়েশিয়ায়, ১৯৯৮-এ। কেরলের একটি কিশোরের মৃত্যু হয় সেই সময় অজানা জ্বরে। জানা গিয়েছিল নিপা ভাইরাসের আক্রমণেই সেই কিশোরের মৃত্যু হয়েছিল। বিজ্ঞানীদের উদ্বেগ, নিপা ভাইরাসের কিন্তু এখনও কোনও ভ্যাকসিন বার করার প্রচেষ্টা দেখা যায়নি। এমনকী, নিপা ভাইরাসের তীব্রতা, এই ভাইরাস কত দ্রুত মানুষের শরীরে প্রবেশ করতে পারে সেই নিয়ে কোনও পরীক্ষামূলক কাজও হয়নি। অথচ, পৃথিবী জুড়ে এই মুহুর্তে নিপা ভাইরাসে মৃত্যুর হার? বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন ৫০ শতাংশ! শুধু মালয়শিয়া নয়, বাংলাদেশেও নিয়মিত প্রচুর মানুষ নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন। বিজ্ঞানীরা জেনেছেন, বাদুড় এই ভাইরাস বহন করার প্রধান ও অন্যতম প্রাণী। মানুষের শরীরেও এই ভাইরাস ঢুকছে বাদুড়ের মাধ্যমে, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে। সাধারণত ঠাণ্ডা এবং সর্দি, কাশিতেই এই ভাইরাস মানুষের শরীরে আক্রমণ করে। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ফলের গায়ে লেগে থাকা বাদুড়ের প্রসাবেই এই ভাইরাস মানুষের শরীরে প্রবেশ করছে। তাই ফল ধুয়ে খাওয়া বাধ্যতামূলক।