দূষণের জন্য লকডাউন!

দূষণের জন্য লকডাউন!

বায়ু দূষণের মাত্রা এতটাই বেশি যে দিল্লিতে দু’দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা উচিত কি না সেই প্রশ্ন তুলেছে খোদ সুপ্রিম কোর্ট। সুইৎল্যান্ডের একটি সংগঠনের সমীক্ষায় দিল্লিকে বিশ্বের দূষণের রাজধানী চিহ্নিত করা হয়েছে। তারই বোধহয় প্রতিফলন ঘটল শনিবার। সুপ্রিম কোর্টে। দিল্লির বায়ু দূষণ সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানিতে প্রধান বিচারপতি এন ভি রমণা কেন্দ্রের কৌঁসুলির কাছে জানতে চান, ‘‘পরিস্থিতি ক্রমশ গুরুতর হচ্ছে। আপনারা কিভাবে এই দূষণের মোকাবিলার কথা ভাবছেন? দু’দিনের জন্য লকডাউন করবেন?’’ দূষণ মোকাবিলায় জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন তিনি। কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সুপারিশ মেনে ইতিমধ্যেই পরিবহণ ব্যবস্থায় রাশ টানা-সহ বেশ কিছু পদক্ষেপ করতে সক্রিয় হয়েছে প্রশাসন। পাশাপাশি দূষণ মোকাবিলায় কিছু বিধিনিষেধ মেনে চলার কথা বলা হয়েছে দিল্লিবাসীকে। বাইরে বেরলে গলায় স্কার্ফ এবং চোখের জ্বলুনি কমাতে সানগ্লাস পরার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এমনকি, ঘরে থাকাকালীনও প্রয়োজন বুঝে মাস্ক পরার কথাও বলা হয়েছে। দিল্লি শহর যেন একটি গ্যাস চেম্বারের মতো।
প্রতি বছরই নভেম্বরের গোড়ায় দিল্লির বাতাসে দূষণের মাত্রা বাড়তে থাকে। দীপাবলির বাজি পোড়ানো, পরিবহণ এবং অন্য দূষণের মাত্রা বাড়তে থাকে। তাই থেকে মুক্তির উপায় বের করতে বলেছে সুপ্রিম কোর্ট।