প্রাণের উদ্ভবের নয়া তত্ত্ব

প্রাণের উদ্ভবের নয়া তত্ত্ব

প্রাণের উদ্ভব আধুনিক পৃথিবীর ঠিক কোন মহাদেশে সে নিয়ে বিতর্কের অন্ত হয়নি এখনো। তবে এতদিন বিজ্ঞানমহল জানত সামুদ্রিক এককোষী জীব থেকেই প্রাণের উদ্ভব। সে তত্ব ধাক্কা খেলো দুই বাঙালি ভূতাত্বিকের আবিষ্কারে। ‘প্রিক্যামব্রিয়ান রিসার্চ’ নামের গবেষণা পত্রিকায় প্রকাশিত প্রবন্ধ থেকে জানা যাচ্ছে ‘জার্মান ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি অফ ওমান’ এর ভূতত্বের অধ্যাপক রজত মজুমদার ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্বের গবেষক ত্রিস্রোতা চৌধুরী ওড়িশার কেওনঝড়ের কাছে ৩৪০ কোটি বছরের প্রাচীন পাললিক শিলার প্রাণের নিদর্শন পেয়েছেন।
স্থলভূমিতে প্রাণের উদ্ভব একথা মানতে গেলে প্রয়োজন স্থিতিশীল মহাদেশের ব্যাখ্যা । রজতবাবুদের মতামত, প্রাপ্ত শিলাই ৩৪০ কোটি বছর আগের স্থিতিশীল মহাদেশের ইঙ্গিতবাহী। এবং ঐ শিলা থেকেই মিলেছে সমুদ্র সৈকত ও নদীপ্রবাহের প্রমাণ। তবে এসব তথ্যকে আপাতত প্রাথমিক সূত্র বলে অনুমান রজবাবু- ত্রিস্রোতার। ভূতত্ববিদ্বয়ের অনুমান ওড়িশা সহ দক্ষিণ ভারতে আরোও বিস্তৃত সমীক্ষা করলে প্রাণের উদ্ভব সম্পর্কে বিস্তারিত ব্যাখ্যা পাওয়া যেতে পারে।