ফের দাবানল ফের আতঙ্ক

ফের দাবানল ফের আতঙ্ক

দাবানল এখন মানুষের কাছেও রীতিমতো মৃত্যুদূত। বিশেষ করে যদি কোভিড সংক্রমণ আর দাবানল পাশাপাশি চলতে থাকে। গত বছর আমেরিকায় দাবানল আর কোভিড ঢেউ এসেছিল একসঙ্গেই।
মার্চ থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে ক্যালিফোর্নিয়া, অরেগন, ওয়াশিংটনে হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছিলেন কোভিডে। যেখানে যেখানে দাবানল ছড়িয়েছিল সেখানে আক্রান্ত রোগীর অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটছিল। ওই সব এলাকায় মৃত্যুর হার ছিল অস্বাভাবিক বেশি। কোভিডে মৃত্যহারের সঙ্গে দাবানলের সম্পর্ক নিয়ে সেই সময় গবেষণা শুরু করেছিলেন কয়েকজন গবেষক। সেই গবেষণার প্রাথমিক ফল বলছে, দাবানলের ধোঁয়া কোভিড সংক্রমণকে প্রভাবিত করেছে। কি ভাবে? গবেষকেরা জানাচ্ছেন, দাবানল থেকে হাওয়ায় এমন কিছু ধূলিকণা থাকে যা মানুষের ফুসফুসে ঢুকলেই সর্বনাশ। শ্বাস নালী কিংবা বায়ু থলিতে আটকে থেকে ওই কণা শ্বাসকষ্ট বাড়িয়ে তোলে। করোনা আক্রান্তদের ফুসফুসে এই ধোঁয়া ঢুকলে রোগীর শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হয়। চিকিৎসকেরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই মৃত্যু হতে পারে। দাবানলে বাতাস ধূলিকণার জন্য অতিরিক্ত ভারী হয়ে যায়। জীবন দেওয়ার বদলে জীবন নিয়ে নেয় ওই বাতাস। এবার আবার দাবানল ছড়াচ্ছে গতবারের ওই এলাকাগুলিতে। করোনাও রয়েছে। দাবানল তাই সিঁদুরে মেঘের মতো বাড়িয়ে তুলেছে আতঙ্কও।