বাবার কীর্তি

বাবার কীর্তী

বাবার কীর্তি

কে ভাবতে পেরেছিল যে ১৬ বছর বয়সী অস্কার কনস্টাঞ্জা একদিন উঠে দাঁড়াতে পারবে? করতে পারবে হাঁটা চলাও?  নার্ভের এক জটিল রোগে ছেলেবেলা থেকেই অস্কারের জীবন আবদ্ধ ছিল হুইল চেয়ারে। হাঁটা চলা তো দূরের কথা, নিজের পায়ে দাঁড়াতে পর্যন্ত পারত না সে। ছেলের এই অবর্ণনীয় কষ্ট সহ্য করতে পারছিলেন না বাবা। তিনি শরীরের বহির্কঙ্কালের আদলে একটি যন্ত্রমানব তৈরি করলেন। সেই যন্ত্রমানব অস্কারের কাঁধ, বুক, কোমড়, হাঁটু এবং পা- আঁকড়ে ধরে থাকল।  তাঁর রোবোর ঠিক মতো কাজ করছে কী না তা দেখতে বাবা যন্ত্রমানবকে হুকুম দিলেন, ‘উঠে দাঁড়াও’। কী আশ্চর্য! অস্কার ধীরে ধীরে দাঁড়িয়ে উঠল। হাঁটতে থাকল এক পা, দু পা করে।  বাবার চোখে জল। চেঁচিয়ে উঠলেন, ‘আমি পেরেছি।’