বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল নিয়ে মন্তব্যে বিতর্কে অস্ট্রেলীয় বিজ্ঞানী

বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল নিয়ে মন্তব্যে বিতর্কে অস্ট্রেলীয় বিজ্ঞানী

দশকের পর দশক ধরে রহস্য বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল নিয়ে। ত্রিভুজ আকারের দ্বীপাঞ্চলে ঢুকতেই হারিয়ে যায় জাহাজ, বিমান। ধ্বংসাবশেষও পাওয়া যায় না। সমস্ত অস্তিত্ব নিয়েই লোপাট হয়ে যায় সেসব। এমনকী জাহাজ বা বিমানযাত্রীদেরও কোনও চিহ্ন থাকে না। ফ্লোরিডা-বারমুডা-পুয়ের্তো রিকোর মাঝের ওই ভূখণ্ড নিয়ে এই কাহিনি রূপকথার পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে।
কিন্তু সম্প্রতি কার্ল ক্রুসজেলনিকি নামের এক অস্ট্রেলীয় বিজ্ঞানীর বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের রহস্য নিয়ে মন্তব্যে সৃষ্টি হয়েছে তুমুল বিতর্কের। ক্রুসজেলনিকি-র দাবি, বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলে কোনও রহস্যই নেই! মার্কিন উপকূলরক্ষী বাহিনীর হিসেব দাখিল করে কার্লের বিশ্লেষণ, ওই অঞ্চলে প্রবেশ করলেই জাহাজ, বিমানদের উধাও হয়ে যাওয়ার পেছনের কারণ ওই অঞ্চলের ট্র্যাফিক বা যানজট! সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বিজ্ঞানী আরও অনেক ঘটনার উল্লেখ করে জানিয়েছেন বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের অবস্থান নিরক্ষীয় অঞ্চলের খুব কাছে। অর্থাৎ পৃথিবীর কেন্দ্রের দিকে। সেই কারণে এখানে প্রবল যানজটের সৃষ্টি হয়। কিন্তু কার্লের দাবি বা ব্যাখ্যা বিজ্ঞানীদের এক বড় অংশের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়নি। বিশেষত, সেই বিজ্ঞানীরা কার্লের ব্যাখ্যা মেনে নিতে পারেননি যারা দাবি করেন ওই ত্রিভূজ অঞ্চলটি আসলে এক প্রাকৃতিক চৌম্বক ক্ষেত্র। যে কারণে বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল থেকে আজ অবধি কোনও হারিয়ে যাওয়া জাহাজ বা বিমানের ধ্বংসাবশেষ পর্যন্ত পাওয়া যায়নি!