বায়ুদূষণে স্বাস্থ্যবিধি নির্দেশিকার প্রকাশ

বায়ুদূষণে স্বাস্থ্যবিধি নির্দেশিকার প্রকাশ

পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খণ্ড জুড়ে বায়ুদূষণ কমানোর উদ্যোগে সুইচ-অন নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গণহারে সচেতনতার প্রচারে নামল। পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে স্থানীয় ক্লাব, যুবসমাজ, সাধারণ নাগরিক, স্বেচ্ছাসেবক, ছাত্র, প্রতিষ্ঠান-সমস্ত স্তরে এই প্রচার তারা চালাবে। তাদের সঙ্গে এই প্রচারাভিযানে সঙ্গী ডক্টরস ফর ক্লিন এয়ার এবং পশ্চিমবঙ্গের ডক্টরস ফোরামও। পশ্চিমবঙ্গে এবং ঝাড়খণ্ডে এই শীতে যেভাবে বায়ুদূষণ বেড়ে চলেছে সেই বিষয়ে শুধু সচেতনতা নয়, একটি স্বাস্থ্য নির্দেশিকাও ডাক্তাররা তৈরি করেছে। সম্প্রতি সেই স্বাস্থ্য নির্দেশিকার তালিকা প্রকাশ করা হয়। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শের তালিকাটি ডাক্তারদের দ্বারা অনুমোদিত হওয়ার পরই সেটা সাংবাদিক বৈঠক করে প্রকাশ করা হয়েছে।
প্রত্যেক বছর শীতে ভারতের অন্য সব দিল্লি এবং মেট্রো শহরগুলোর মত কলকাতাতেও দেখা যায় বাতাসে ধোঁয়ার পুরু আস্তরণ। যাকে স্মগ বলা হয়। পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, প্রতি ৩ মিনিটে ভারতে একটি করে শিশু মারা যায়। যার কারণ, নিশ্বাস নেওয়ার সময় তাদের মুখে ঢোকে বাতাসে জমে থাকা কার্বন-ডাই-অক্সাইডের মত বিষাক্ত উপাদান। ২০১৭-য় শুধু বায়ুদূষণের কারণে ভারতে শুধু শিশু মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫৪৬।