বিজ্ঞানীদের জন্য প্রতিযোগিতা!

বিজ্ঞানীদের জন্য প্রতিযোগিতা!

এ যেন ছোটদের কুইজ কনটেস্ট! রাশিয়ার বিখ্যাত মাইনিং za কোম্পানি নর্নিকেল কোম্পানির তরফে বিজ্ঞানীদের জন্য একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ফেলা হল! কী সেই কনটেস্ট? প্যালেডিয়াম এমনভাবে ব্যবহার করতে হবে যাতে ধাতুটির দ্রুত ক্ষয় না হয়! ব্যবহারের রাস্তা বাতলাতে হবে! প্রতিযোগিতার নামও দেওয়া হয়েছে, প্যালেডিয়াম চ্যালেঞ্জ। সাড়ে তিন লক্ষ মার্কিন ডলার বরাদ্দ পর্যন্ত করা হয়েছে! বিজ্ঞানীরা অথবা কোনও সাহসী ব্যবসায়ী যদি প্যালেডিয়াম ব্যবহারের পরিবর্ত পন্থা বার করে দিতে পারে। এই উদ্যোগে রুশ মাইনিং কোম্পানিটি আন্তর্জাতিক প্রেশাস মেটাল ইনস্টিটিউটের সঙ্গে জোট বেঁধেছে। ২০২২-এর সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্কে এই প্রযোগিতার সমাপ্তি ঘটবে, তিনটি সেরা প্রোজেক্টের মধ্যে পুরষ্কার ভাগ করে দিয়ে।
কিন্তু এত আয়োজন কেন? কারণ প্যালেডিয়ামের যোগান কমে যাচ্ছে ক্রমশ। প্যালেডিয়াম প্রয়োজন হয় গাড়ি শিল্পে। প্যালেডিয়ামের ব্যবহারে দূষণ কম হয়। বাতাসে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের নিঃসরণ কম হয়। রুশ বিজ্ঞানীরা এবং একইসঙ্গে নর্নিকেলের তরফে জানানো হয়েছে বিশ্বজুড়েই প্যালেডিয়ামের চাহিদা হঠাৎ কমে গিয়েছে! কারণ, গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি প্যালেডিয়ামের ‘চিপের’ অভাবে’ গাড়িতে এই ধাতুর তৈরি কনভার্টার আর লাগাচ্ছে না!
নর্নিকেলের তরফে বলা হয়েছে, বিশ্ব জুড়ে এই ধাতুর চাহিদা অপরিসীম। এই ধাতুর তৈরি ‘চিপ’ কার্বন নিঃসরণ কমায় যা ‘গ্রীন ইকোনমির’ জন্য ভীষণভাবে সহায়ক। পৃথিবী জুড়ে মোট চাহিদার ৪৪ শতাংশ প্যালেডিয়ামের যোগান দেয় এই রুশ মাইনিং কোম্পানিটি।