বৃহদাকার ভাইপারের দীর্ঘ বিষদাঁত

বৃহদাকার ভাইপারের দীর্ঘ বিষদাঁত

আফ্রিকার জঙ্গলে ঘুরে বেড়ায় সাপের এক প্রজাতি – এক বিশাল ভাইপার যার কামড় খুবই ভয়ঙ্কর। পৃথিবীর যে কোনও সাপের তুলনায় এদের বিষ দাঁত বড়ো, যা লম্বায় প্রায় ৫ সেন্টিমিটার এবং এরা এই দাঁতকে মুখ গহ্বরে ঢুকিয়ে নিতে পারে। হরিণের মতো বড়ো শিকারকে সহজেই এই ভাইপার ধরাশায়ী করে ফেলতে পারে। গ্যাবুন ভাইপার (বিটিস গ্যাবোনিকা) নামের এই সাপ তাদের শরীরের আকারের কারণে বড়ো এবং ছোটো উভয় বন্য প্রাণীদের জন্যই ভয়ঙ্কর শিকারী বলে পরিচিত। এই ভাইপারের ওজন প্রায় ২০ কেজি এবং লম্বায় এরা প্রায় ৬ ফুটেরও বেশি হতে পারে। এদের ১৫ সেন্টিমিটার চওড়া মাথাটি একটা ঝরে পড়া পাতার মতো দেখতে আর তাই ব্যাঙ, পাখি, ইঁদুর বা অন্যান্য শিকারকে এরা সহজেই বোকা বানাতে পারে। মাত্র এক সেকেন্ডে, এই ভাইপার ছয় মিটার লাফ দিতে সক্ষম।
কিছু গবেষকদের মতে গ্যাবুন ভাইপার মূলত স্তন্যপায়ী প্রাণীদের খাওয়ার জন্য তার বড়ো বিষদাঁত বা ভেনম ইনজেক্টর তৈরি করেছিল। তবে, গ্যাবুন ভাইপার, অন্যান্য বিষাক্ত সাপ থেকে আলাদা কারণ এটি কেবল দ্রুত বিষাক্ত আঘাত হানে তাই নয়, বরং শিকার সম্পূর্ণরূপে মারা যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করে। এর ফলে ভাইপার তার শিকারের মধ্যে অস্বাভাবিক পরিমাণে বিষ ঢুকিয়ে দেয় –প্রায় ২৪০০ মিলিগ্রাম শুকনো বিষ এবং ৯.৭ মিলিলিটার আর্দ্র বিষ। এই পরিপ্রেক্ষিতে বলা যেতে পারে প্রায় ১০০ মিলিগ্রাম শুকনো বিষ মানুষের জন্য মারাত্মক। যদিও বলা হয় এই সাপের বিষ ছয়টি মানুষকে ধরাশায়ী করতে যথেষ্ট তবে তারা মানুষকে খুব কমই আক্রমণ করে। আশার কথা হল এদের বিষ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বিজ্ঞানীদের হাতে প্রতিষেধক রয়েছে।