ভেন্টিলেটরহীন ঘর কোভিডের সহায়ক

ভেন্টিলেটরহীন ঘর কোভিডের সহায়ক

ইংল্যান্ডের লরেন্স বার্কলে জাতীয় গবেষণাগারের সাম্প্রতিক বার্তা, গৃহস্থের ঘর ছোট হলেও ক্ষতি নেই, কিন্তু যে ঘরে ভেন্টিলেটর নেই সেই ঘর সেই গৃহস্থের কাছে বিপজ্জনক! কারণ সেই সেরকম ঘরেই কোভিড-১৯-এর বর্তমান ভাইরাস ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টের অবাধ বিচরণ হয়। সেরকম ঘরে থাকা মানুষের কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। ইনডোর এয়ার নামের একটি জার্নালে এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হয়েছে। বলা হয়েছে, ভেন্টিলেটরহীন ঘরে দু’টো মানুষ যদি ৬ ফুটের দূরত্বেও বসে থাকেন, এমনকী মাস্কও পরে থাকেন তাও তাদের কোভিড ভাইরাসে সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি! একটা ব্যাখ্যাও দেওয়া হয়েছে। যে কোনও ঘরের ওপর দিকের হাওয়া তুলনামূলকভাবে গরম থাকে, মাঝের ও নীচের অংশের থেকে। গবেষকদের পরীক্ষা জানাচ্ছে, ঘরে ভেন্টিলেটর না থাকলে ওপর দিকের উষ্ণ হাওয়ার বেরনোর উপায় থাকে না। তাতে ঘরের মাঝের অংশ এবং নীচে যে তুলনামূলক ঠাণ্ডা হাওয়ার চলাচল হয় সেটা উষ্ণ হাওয়ার বাধায় বন্ধ হয়ে যায়। আর তখনই কোভিড ভাইরাসের মুভমেন্ট হয় মসৃণ। বার্কলে গবেষণাগারের বিজ্ঞানীরা বলছেন, ভেন্টিলেটরহীন ঘরে বসে আছেন দু’জন মানুষ, যাদের কেউই কোভিডে আক্রান্ত হননি। তাদের ওই অবস্থায় নিঃশ্বাসের কষ্ট হতে পারে। কিন্তু দু’জনের একজনের হয়ত সংক্রমণ হয়েছিল বা দু’জনের মধ্যে একজন বসে আছেন সর্দি, কাশি, হালকা জ্বর নিয়ে, সেক্ষেত্রে অন্যজনের সংক্রামিত হতে সময় লাগবে না ওই ভেন্টিলেটরহীন ঘরে।