রাজ্যে সরকারি উদ্যোগে টেস্ট টিউব বেবি

রাজ্যে সরকারি উদ্যোগে টেস্ট টিউব বেবি

কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে শুরু হতে চলেছে রাজ্যের প্রথম সরকারি উদ্যোগে ‘টেস্ট টিউব বেবি’ জন্ম দেওয়ার প্রক্রিয়া। এর আগে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এই সুযোগ পাওয়া যেত। টেস্ট টিউব বেবি জন্ম দেওয়া হয় আই ভি এফ প্রক্রিয়ার মাধ্যমএ। যার পুরো কথা ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন। এই প্রক্রিয়ায় কৃত্রিম উপায়ে শরীরের বাইরেই শুক্রানু ও ডিম্বানুর মিলন ঘটানো হয়। এবং তার ফলে ল্যাবরেটরিতে জন্ম নেয় ভ্রুণ। এই ভ্রণ কৃত্রিম পদ্ধতিতে মায়ের জরায়ুতে স্থাপন করা হয়। এই পদ্ধতিতে জন্ম নেওয়া শিশুকেই বলা হয় টেস্ট টিউব বেবি। একাধিক পর্যায় বা সাইকেলের মধ্যে দিয়ে এই পদ্ধতিতে সন্তান ধারণ সম্ভব হয়। বেসরকারি হাসপাতালে প্রতিটি সাইকেলের খরচ বিপুল। সরকারি উদ্যোগে সে খরচে লাগাম পড়বে। সাধারণ মানুষের সাধ্যের মধ্যে এসে পড়বে গোটা প্রক্রিয়ার খরচ।
তাছাড়াও আমাদের সমাজে সন্তান ধারণের শারীরিক অক্ষমতাকে বন্ধ্যাত্ব বলে হেয় করে ও নীচ চোখে দেখার প্রবনতা রয়েছে। বিশেষত আমাদের পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থায় লসন্তান ধারণে সমস্যা দেখা দিলে দম্পতির মধ্যে মেয়েদেরকেই অত্যন্ত নীচ করে দেখা হয়। আইভিএফ প্রক্রিয়ায় এসমস্ত দম্পতিরা সন্তানধারণ করতে পারেন। সরকারি উদ্যোগে কেবল খরচের দিকটিই নয়, প্রত্যাশা করা যায় সন্তান ধারণ অক্ষমতাকে ঋণাত্মক দৃষ্টিতে দেখার বিরুদ্ধে সরকারই উদ্যোগ নেবে সমাজ মননকে গড়ে তোলার। ডাঃ গৌতম খাস্তগির বলেন, শিক্ষিত মানুষ যাদের কোনো কারণে সন্তান ধারণে সমস্যা হচ্ছে, তাদেরও কাউন্সিল করতে হবে এবং সমাজকেও প্রস্তুত করতে হবে।