সাপ মেরে নৈশভোজ মাকড়সার

সাপ মেরে নৈশভোজ মাকড়সার

সাপ মেরে নৈশভোজ মাকড়সার

একটি ছোট্ট মাকড়সার রাতের খাবার তার চেয়ে অন্তত ৩০ গুণ বড় একটি সাপ! গল্পকথা নয়। একেবারে বাস্তব। মাকড়সা কী খায়? ছোট পোকামাকড়, কৃমি, টিকটিকি, এমনকী, ছোট ব্যাঙও খেতে দেখা যায় তাদের। কিন্তু সাপ? হ্যাঁ, এমন কয়েক ধরনের মাকড়সা খুঁজে পেয়েছেন বিশেষজ্ঞরা, যারা তাদের চেয়ে আয়তনে অন্তত ৩০ গুণ বড় একটি সাপকে মেরে অনায়াসে খেয়ে নিতে পারে। গবেষণা জানাচ্ছে, ১১ রকমের মাকড়সা আছে যাদের অন্যতম প্রধান খাবার সাপ। যেমন অস্ট্রেলিয়ার রেডব্যাক মাকড়সা। এই মাকড়সাটি আয়তনে একটি ললিপপ লজেন্সের মতো। সেই মাকড়সাকে অনায়াসে বাদামী সাপ ধরে খেয়ে নিতে দেখা গিয়েছে! বিশ্বের বিষাক্ত সাপগুলোর মধ্যে অন্যতম এই সাপ। এক পতঙ্গবিদ নিজের চোখে দেখেছেন ওই মাকড়সার শিকার ধরার রোমহর্ষক দৃশ্য। সাপটিকে নিজের লম্বা লম্বা পায়ের মধ্যে বেঁধে ফেলে বিষাক্ত আঠায় তাকে অবশ করে দিয়ে একটা কামড়! সঙ্গে সঙ্গে সেই সাপের মৃত্যু। মাকড়সা বিশেষজ্ঞ মার্টিন নাইফেলার বলেছেন, “ছোট্ট একটা রেডব্যাক মাকড়সার পক্ষে বাদামী সাপ মারতে বেশি সময় লাগে না।”
পতঙ্গবিদেরা বলছেন, মাকড়সার সাপ শিকারের বেশিরভাগ রিপোর্ট তাঁরা পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়া আর আমেরিকা থেকে। তবে পতঙ্গবিদদের ধারণা, অ্যান্টার্কটিকা ছাড়া প্রত্যেক মহাদেশেই সাপ-খেকো মাকড়সার অস্তিত্ব রয়েছে। সাপ খাওয়া মাকড়সাদের মধ্যে সবচেয়ে সফল কারা? ট্যাংগল ওয়েব মাকড়সা যাদের বাস উত্তর আমেরিকায়‌। তাঁতি মাকড়সাও সাপ শিকারে পারদর্শী। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, সোনালি রঙের ওই মাকড়সা একটা ১ মিটার লম্বা সবুজ রঙের সাপকে ধরে খেয়ে ফেলল। বিজ্ঞানীদের আরও পর্যবেক্ষণ, সব মাকড়সা কিন্তু প্রথমে তাদের তৈরি করা জালে সাপকে ফাঁসায় না। যেমন টারান্টুলা। চোয়ালের সাহায্যে সে সাপটাকে ধরে তার মধ্যে বিষটা ঢূকিয়ে দেয়! মাকড়সার চোয়ালে এমন শক্তি যে শক্তিমান সাপের তখন নড়ারও ক্ষমতা নেই! তার শরীরে
সাপের বিষ ঢোকার পর থেকে সেই প্রবল শক্তিমান সাপের তখন শুধু নিস্তেজ হওয়ার পালা!