১৫ লক্ষ বছর আগের পাখি!

১৫ লক্ষ বছর আগের পাখি!

১৫ লক্ষ বছর আগের এক পাখির জীবাশ্ম উদ্ধার হল! ময়ুর বা রাজহাঁস মিলে গেলে যেমন দেখতে হয়, অনেকটা সেরকমই দেখতে। কিন্তু বিশাল ছিল তার আয়তন ও আকৃতি। ২০১৩-তে ব্রাজিলের স্যান্টোস হার্বারে পুলিশ হানা দিয়ে প্রায় ৩০ হাজার জীবাশ্ম উদ্ধার করেছিল। সেগুলো সবই পাচার হচ্ছিল। তার মধ্যে থেকে সেই সরীসৃপের জীবাশ্মটি উদ্ধার করা হয়। পাখিটি টেরোসর প্রজাতির। প্রাণীবিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন তার নাম ছিল টেপজারিড। এত বড় তার মাথা আর লম্বা ঘাড় ছিল যে, উড়তে গেলে তার রীতিমত কষ্ট হত! তাই গবেষণা জানাচ্ছে সেই পাখি হেঁটে চলেই বেড়াত অধিকাংশ সময়। মানবসভ্যতার ক্রিটাসিয়াস যুগ, মানে ১০ থেকে ১৫ লক্ষ বছর আগে বাস ছিল এই পাখির।
পর্তুগালের জীবাশ্মবিদ ভিক্টর বেকারি জানিয়েছেন, ২০১৬-তে তার হাতে সেই পাখির জীবাশ্ম পৌঁছয়। তখনই সেটা ৬ টুকরো করা হয়ে গিয়েছে! তবু, অত্যাধুনিক স্ক্যানারে সেই টেরোসরের কঙ্কালের জীবাশ্ম বিশ্লেষণ করে বেকারি দেখেছেন, পাখিটির পা ছিল বক পাখির মত লম্বা। তাই হাঁটাতেই তারা স্বচ্ছন্দ ছিল। একমাত্র খাবারের সন্ধানে বা শিকারির হাত থেকে বাঁচতে উড়ত সেই টেরোসর।